সরকার শুধু নারী নির্যাতন-ধর্ষণ নয়, সমস্ত বাংলাদেশকে ধর্ষণ করছে

প্রকাশিত: অক্টোবর ৮, ২০২০

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, ‘নারী নির্যাতনের হার, ধর্ষণের হার যে বেড়ে গেছে তাতে উদ্বিগ্ন হয়ে জাতিসংঘের মহাসচিব বিবৃতি দিয়েছেন। এটা একটা বিরল ঘটনা। এই বিবৃতিতে বাংলাদেশের মানুষের সম্মান মাটির সঙ্গে মিশে গেছে। এতে দেশের মানুষের সমস্ত ইজ্জত নষ্ট হয়ে গেছে। আজ এই সরকার শুধু নারী নির্যাতন-ধর্ষণ নয়, সমস্ত বাংলাদেশকে ধর্ষণ করছে। এই দায় তারা এড়াতে পারে না।

বৃহস্পতিবার ( ৮ অক্টোবর) দুপুরে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে আয়োজিত এক মানববন্ধনে তিনি এসব কথা বলেন। মির্জা ফখরুল বলেন, ’এই সরকারের সঙ্গে জনগণের কোনও সম্পর্ক নেই। গায়ের জোরে বন্দুক পিস্তল দিয়ে ক্ষমতায় আছে। তাদের বিরুদ্ধে একটা কথা বললেও জেল হয়।’

তিনি আরও বলেন, ‘নোয়াখালীর বেগমগঞ্জের ঘটনা মাস খানেক ধরে চলছে। অথচ সরকারের পুলিশ বাহিনী নিরব। সারাদেশে আজ সরকারের কোনও নিয়ন্ত্রণ নেই। কারণ আইনশৃঙ্খলা বাহিনী, প্রশাসনকে আপনারা ব্যবহার করছেন অন্যায় কাজে। আপনারা ভোট চুরি করেছেন, ডাকাতি করেছেন, সেখানে তাদেরকে ব্যবহার করেছেন। মানুষ এখন আওয়ামী লীগকে ভয় পায় না, ভয় পায় পুলিশকে। মাদক চোরাকারবারি, তাদের দিয়ে নিয়ন্ত্রণ কীভাবে হবে। তারাই তো জড়িত বেশি।’ ফখরুল ইসলাম আলমগীর নারীদের প্রতি আহ্বান জানিয়ে বলেন, ‘আপনাদের প্রতি যে অন্যায়-অবিচার চলছে তার বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ান।’