‘ধর্ষণ’ মামলার আসামী মার্জিয়া প্রভা পলাতক

প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ৯, ২০২০

নারীবাদী অ্যাক্টিভিস্ট, এবং ‘উইমেন চ্যাপ্টার’ এর লেখিকা হিসেবে সুপরিচিত মার্জিয়া প্রভা, এবং তার দুই ঘনিষ্ট সহযোগীকে আসামী করে গত পহেলা সেপ্টেম্বর মৌলভীবাজার মডেল থানায় ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন এক তরুণী। এরপর থেকে মার্জিয়া প্রভা পলাতক রয়েছেন।

মার্জিয়া প্রভার বিরুদ্ধে অভিযোগ, তিনি তার বন্ধুর ভাড়া বাসায় নাইট পার্টির আয়োজনের কথা বলে ‘ভুক্তভোগী’ মেয়েটিকে ডেকে নিয়ে ধর্ষণের সুযোগ তৈরী করে দেন। এছাড়াও ইচ্ছেকৃতভাবে মেয়েটিকে অতিরিক্ত গাঁজা সেবন করিয়েছেন যাতে মেয়েটি ধর্ষণে কোনরূপ বাধা দিতে না পারে। এবং বন্ধু মাহমুদ বিষয়টি বুঝতে পেরে ধর্ষণে বাধা দিতে গেলে মার্জিয়া প্রভা তাঁকে সেখান থেকে সরিয়ে আনেন এই বলে যে, ছেলেটি মেয়েটির পূর্ব পরিচিত, এবং ওদের দীর্ঘদিনের প্রেম আছে।
মামলার প্রধান আসামী তুষার ও মার্জিয়া প্রভা বর্তমানে পলাতক থাকলেও, মার্জিয়া প্রভার প্রেমিক রায়হান বকস গত ৩ সেপ্টেম্বর বিজ্ঞ আইনজীবীর মাধ্যমে আদালতের কাছে আত্মসমর্পণ করেন। রায়হানকে উক্ত মামলার ( জি আর ২০৩/২০) ৩ নং সহযোগী আসামী করা হয়েছিল।
আত্মসমর্পণ পূর্বক আদালত তাকে সি/ডব্লিউ মূলে জেল হাজতে প্রেরনের আদেশ প্রদান করেন।
গতকাল ৭ সেপ্টেম্বর সোমবার বর্ণিত মামলার তদন্তকারী অফিসার তাপস চন্দ্র রায় মামলাটি সুষ্ঠুভাবে তদন্তের স্বার্থে মৌলভীবাজার ১নং আমলী আদালতে হাজতী আসামী রায়হান বকসকে ৭ দিনের রিমান্ড নেয়ার আবেদন করলে আদালত তাকে ১ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।