বেসামরিক গেজেটে অন্তর্ভুক্তির জন্য বিজিবি মুক্তিযোদ্ধাদের মানববন্ধন

প্রকাশিত: আগস্ট ১০, ২০২০

মিরর নিউজ ডেস্ক: বাহিনী গেজেট থেকে বেসামরিক গেজেটে অন্তর্ভুক্তির দাবি জানিয়েছেন ১৯৭১ সাল পরবর্তীসময়ে যোগ দেওয়া মুক্তিযোদ্ধা বিজিবি পরিবারের সদস্যরা।  

সোমবার (১০ আগস্ট) রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাবেরর সামনে আয়োজিত এক মানববন্ধন থেকে এ দাবি জানানো হয়।

মানববন্ধনে বলা হয়, স্বাধীনতার ৫০ বছর পর মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয় জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিলের (জামুকা) সুপারিশক্রমে গত বছর ১৯৭১ পরবর্তীসময়ে বিডিআর (বর্তমানে বিজিবি) বাহিনীতে যোগ দেওয়া মুক্তিযোদ্ধার গেজেট পরিবর্তন করে বেসামরিক গেজেটের উদ্যোগ নেয়। চলতি বছর ১৫ জানুয়ারির মধ্যে জামুকার নির্ধারিত ফরমে আবেদন দিতে বলা হয়। আমরা নির্ধারিত সময়ে আবেদন করি এবং রিসিভ কপির সিরিয়াল নম্বর সংগ্রহ করি।

১৯৭১ পরবর্তীসময়ে যোগ দেওয়া বিজিবি মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের সমন্বয়ক অবসরপ্রাপ্ত নায়েক সুবেদার সাহাব উদ্দীন বলেন, আমরা প্রকৃত মুক্তিযোদ্ধা।

তাহলে কেনো সরকারি সুযোগ-সুবিধা পাবো না। সরকারেরর কাছে আবেদন জানাই, হয় সিভিল গেজেট প্রকাশ করুন অথবা আগের গেজেট পুর্নবহাল রাখুন।

এসময় তিনি তিন দফা দাবি পেশ করেন। দাবিগুলোর মধ্যে ছিল- বেসামরিক গেজেটে অন্তর্ভুক্তির আগ পর্যন্ত মুক্তিযোদ্ধা সম্মানী ভাতাসহ রাষ্ট্রীয় সব সুবিধা পুর্নবহাল করা, মন্ত্রণালয়ের বাহিনী গেজেট বাতিল আদেশ প্রত্যাহার করতে হবে এবং প্রকৃত মুক্তিযোদ্ধাদের হয়রানিমূলক যাচাই-বাছাই বন্ধ করতে হবে। বক্তাব্য রাখেন বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ ও মুক্তিযোদ্ধা গবেষক ড. আব্দুল ওয়াদুদ সহ আরো অনেকে।