অনেক খাদ্যসামগ্রী হওয়ায় আশেপাশের অভাবি মানুষকে দিচ্ছেন আকবর

প্রকাশিত: এপ্রিল ২৬, ২০২০

গতকাল এক ফেসবুক পোস্টের মাধ্যমে ‘ইত্যাদি’খ্যাত সংগীতশিল্পী আকবর জানান, তিনি ভালো নেই। করোনা পরিস্থিতির কারণে অনেক দিন ধরেই তার কাজ নেই। অনেক সময় উপোষ থাকতে হচ্ছে পরিবার নিয়ে। এমনকি ঔষধ কেনার টাকাও নেই বলে জানান তিনি। এরপর গণমাধ্যমে এই সংবাদ আসলে অনেকেই সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেন। গতকালই খাবার সামগ্রী ও আর্থিক সহায়তা নিয়ে আকবরের বাসায় হাজির হন শিল্পী সমিতির সাধারণ সম্পাদক ও নায়ক জায়েদ খান। এরপর আরো অনেকেই সহযোগিতা করছেন এ গায়ককে। কেউ দিয়েছেন টাকা, কেউ দিয়েছেন খাবার।
এত খাবার যে রীতিমতো ভরে গেছে গায়ক আকবরের বাসা। এত খাবার এসেছে যে দুই মাসের খাবার রেখে বাকিটা আশপাশের অভাবি মানুষকে দিয়ে দিচ্ছেন আকবর।
এদিকে ঢাকা জেলার জেলা প্রশাসক আবু ছালেহ মোহাম্মদ ফেরদৌস খান বিকাশে আকবরকে ১০ হাজার টাকা পাঠিয়েছেন। এ ছাড়া মিরপুর জোনের সহকারী কমিশনার (ভূমি) সৈয়দ মোরাদ আলী ২০ কেজি চাল, ১০ কেজি আলু, ২ কেজি ডাল পৌঁছে দিয়েছেন আকবরের কাছে।
আকবর বলেন, মানুষ যে আমাকে এত ভালোবাসে, তার আবারো প্রমাণ পেলাম। আমি সবার কাছে কৃতজ্ঞ। তিনি জানান, বহু মানুষের কাছ থেকে সহযোগিতা পেয়েছেন। মানুষ তার বাড়িতে এত খাবার দিয়ে গেছে, যা আগামী ছয় মাসেও শেষ হবে না। তিনি মাত্র দুই মাসের খাবার রেখে বাকিটা আশপাশের অভাবি মানুষকে দিয়ে দিচ্ছেন। আকবর বলেন, আশা করি দুই মাস পর আমি আবার কাজ পাব। শুধু শুধু এত খাবার ঘরে রাখতে চাই না। কারণ, আমার আশপাশেও অনেক অভাবি মানুষ আছে।
কিশোর কুমারের ‘একদিন পাখি উড়ে’ নতুন করে গেয়েছিলেন আকবর। হানিফ সংকেতের জনপ্রিয় ম্যাগাজিন অনুষ্ঠান ইত্যাদিতে এই গান তাকে আলোচনায় নিয়ে আসে। এরপর ‘তোমার হাতপাখার বাতাসে’ গানটি দেশ-বিদেশের দর্শক-শ্রোতার কাছে তাঁকে পরিচিত করে তোলে। গায়ক হিসেবে পরিচিতি পাওয়ার আগে যশোরে রিকশা চালাতেন আকবর। খুলনার পাইকগাছায় জন্ম হলেও আকবরের বেড়ে ওঠা যশোরে। গান শেখা হয়নি। তবে আকবরের ভরাট কণ্ঠের কদর ছিল যশোর শহরে। সে কারণে স্টেজ শো হলে ডাক পেতেন তিনি। ২০০৩ সালে যশোর এমএম কলেজের একটি অনুষ্ঠানে গান গেয়েছিলেন আকবর। বাগেরহাটের এক ব্যক্তি আকবরের গান শুনে মুগ্ধ হন। তিনি জনপ্রিয় ম্যাগাজিন অনুষ্ঠান ইত্যাদিতে চিঠি লেখেন আকবরকে নিয়ে। এরপর ইত্যাদি কর্তৃপক্ষ আকবরের সঙ্গে যোগাযোগ করে। ওই বছর ইত্যাদি অনুষ্ঠানে কিশোর কুমারের ‘একদিন পাখি উড়ে’ গানটি গেয়ে রাতারাতি পরিচিতি পেয়ে যান।