হেলিকপ্টারে বিয়ে করতে গেলেন ৫৬ বছরের মুফতি

প্রকাশিত: অক্টোবর ১২, ২০২১

যশোরে ৫৬ বছর বয়সী এক মুফতি ও ৩৩ বছরের নারীর দ্বিতীয় বিয়ে নিয়ে মানুষের মধ্যে সৃষ্টি হয়েছে আলোচনা ও কৌতূহল। পাশের উপজেলায় হেলিকপ্টার নিয়ে বিয়ে করতে যান ওই মুফতি। সোমবার (১১ অক্টোবর) বেলা পৌনে ৩টার দিকে অভয়নগর উপজেলার শ্রীধরপুর ইউনিয়নের দিঘিরপাড় গ্রামে বিয়ে করতে যান তিনি। এ সময় বর দেখতে ভিড় জমায় অসংখ্য মানুষ।

বিয়ে করতে আসা ব্যক্তি হলেন, যশোরের মনিরামপুর উপজেলার সুন্দলপুর গ্রামের আফতাব উদ্দিনের ছেলে মুফতি লুৎফর রহমান ফারুকী। তিনি যশোর জামেয়া ইসলামী মাদরাসার প্রতিষ্ঠাতা, মহাপরিচালক ও আল ফারুকী প্রপার্টিজের চেয়ারম্যান।

আর কনে দিঘিরপাড় গ্রামের আব্দুল মান্নানের মেয়ে খাদিজা পারভীন লিপি। তার দুইটি ছেলে সন্তান রয়েছে। আর বর মুফতি লুৎফর রহমান ফারুকীর প্রথম স্ত্রী, দুই ছেলে ও এক মেয়ে সন্তান রয়েছে। এ বিয়ের মধ্যস্থতা করেছেন অভয়নগর উপজেলার পুড়াখালি মহিলা মাদরাসার সুপার আশেক এলাহী।

মুফতি লুৎফর রহমান ফারুকী সাংবাদিকদের বলেন, আমার প্রথম স্ত্রীর সঙ্গে আলোচনা সাপেক্ষে দ্বিতীয় বিয়ে করেছি। সোমবার অভয়নগর উপজেলার দিঘিরপাড় গ্রামের আব্দুল মান্নানের মেয়ে খাদিজা পারভীন লিপির সঙ্গে বিবাহ সম্পন্ন হয়েছে। আমি খুবই ব্যস্ত মানুষ। সময় বাঁচাতে হেলিকপ্টারে করে গিয়েছি। পারিবারিক সমস্যার কারণে দ্বিতীয় বিয়ে করেছি।

এ বিয়ের মধ্যস্থতাকারী অভয়নগর উপজেলার পুড়াখালি মহিলা মাদ্রাসার সুপার আশেক এলাহী জানান, দুই পরিবারের সিন্ধান্তে এই বিয়ে হয়েছে। দুই পরিবারের মানুষ ছাড়া বিয়েতে আর কেউ উপস্থিত ছিল না। হেলিকপ্টারে বর আসার খবরে দূরদূরান্ত থেকে মানুষ বিয়ে দেখতে আসেন।