জর্ডানে দূতাবাসের করা মামলায় প্রবাসী বাংলাদেশি সাংবাদিক গ্রেফতার!

প্রকাশিত: এপ্রিল ১৭, ২০২০

মিরর প্রবাস ডেস্কঃ প্রবাসী সাংবাদিক সেলিম আকাশ।পরিবার সহ বাস করেন জর্ডানের রাজধানী আম্মানে।পরিবারে তার স্ত্রী(ফিলিপাইনের নাগরিক) সহ ২ জন সন্তান রয়েছে।ছোট কন্যা সন্তানটির বয়স ২ বছর।দেশটিতে সে সবসময় বৈধ থাকলেও গত ২ বছর যাবত কফিল জটিলতায় আকামা নবায়ন করতে পারে নাই। বাংলা টিভি, জাগো নিউজ, আমাদের সময় ও আকাশ যাত্রাতে সাংবাদিকতা করেন।প্রায় ২ বছর ধরে দূতাবাস সহ কমিউনিটির সংবাদ বাংলাদেশের বিভিন্ন মিডিয়ায় প্রচার করে আসছেন বেশ সুনামের সাথে।

গত ৫ এপ্রিল বাংলা টিভি সহ আরো কয়েকটি অনলাইন পোর্টালে “জর্ডানে লকডাউনের কবলে পড়ে ৩০ হাজার প্রবাসী খাদ্য সংকটে” এ সংক্রান্ত নিউজ করায় দূতাবাস রাগান্বিত হয়ে তার নামে তথ্য প্রযুক্তি আইনে সে দেশের থানায় অভিযোগ করলে ১৩ এপ্রিল সোমবার স্থানীয় সময় বিকাল ৩টায় দেশটির গোয়েন্দা পুলিশ তাকে ধরে নিয়ে যায়।বর্তমানে সে পুলিশ হেফাজতে রয়েছে।এদিকে বাংলা টিভি ও জাগো নিউজ থেকে দূতাবাসে যোগাযোগ করলে তারা জানায় যে সেলিম আকাশের ব্যাপারে দূতাবাস কিছু জানে না।দূতাবাস জানায় সে অবৈধ বলে পুলিশ তাকে ধরে নিয়ে গেছে।এ ব্যাপারে দূতাবাসের হাত নাই।এদিকে তার পরিবার ২টি বাচ্চা সহ উদ্বেগ ও উৎকণ্ঠার মধ্যে দিন কাটাচ্ছে।এদিকে আজ বৃহস্পতিবার স্থানীয় পুলিশ ষ্টেশন থেকে একজন পুলিশের সাথে তার স্ত্রীর কথোপকথনের অডিওতে স্পস্টত প্রমাণিত হয়েছে যে দূতাবাসের রোষানলে পড়ে সেলিম আকাশ গ্রেফতার হয়েছে।এদিকে সেলিম আকাশের গ্রেফতারে প্রবাসী বাংলাদেশিরা নিন্দা জানিয়েছে।কিন্তু লকডাউনের কারণে তারা দূতাবাসে যেতে পারছে না।


বর্তমানে সারা বিশ্বে করোনা ভাইরাস প্রকোপের কারনে যেখানে মধ্যপ্রাচ্যের সরকার প্রধানগুলো প্রবাসী বন্দীদের মুক্তি দিচ্ছে সেখানে দূতাবাস তাকে পুলিশে ধরিয়ে দিযে বলছে দূতাবাস কিছুই জানে না।