রাজধানীর সড়ক অনেকটাই ফাঁকা

প্রকাশিত: জুলাই ২৬, ২০২১

করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধে সরকারের জারি করা কঠোর বিধিনিষেধের কারণে সড়কে মানুষের চলাচল কম রয়েছে। রাস্তায় পুলিশের চেকপোস্ট থাকায় রিকশা, প্রাইভেটকারের চলাচলও কম দেখা গেছে। যে কারণে বিধিনিষেধের চতুর্থ দিন সোমবার (২৬ জুলাই) সকালে রাজধানীর বিভিন্ন সড়ক অনেকটাই ফাঁকা দেখা গেছে।

সকালে রাজধানীর রামপুরা, বাড্ডা, গুলশানসহ আশপাশের বিভিন্ন সড়ক ঘুরে দেখা গেছে, মানুষের উপস্থিতি একেবারেই কম। প্রধান সড়কগুলোতে কিছু প্রাইভেটকার, রিকশা আর মোটরসাইকেল ছাড়া অন্য কোনো যানবাহন তেমন একটা চোখে পড়েনি। অলিগলিতে কিছু মানুষ থাকলেও মূল সড়কগুলোতে মানুষের উপস্থিতি নেই বললেই চলে।

গুলশানের লিংক রোডে কথা হয় পথচারী নিয়াজ মাহমুদের সঙ্গে। তিনি বলেন, আমি মিরপুর থেকে রিকশায় ভেঙ্গে ভেঙ্গে গুলশান পর্যন্ত এসেছি। পুরো সড়কেই মানুষের উপস্থিতি নেই, গাড়িও নেই তেমন। খবরে দেখেছি ঈদের সময় যেসব মানুষ ঢাকা ছেড়েছেন তাদের বড় একটি অংশ এখনও ফিরে আসেনি। তাই রাজধানী এখনও ফাঁকা।

এদিকে মোবাইল ফোনের সিম ব্যবহারকারীর সংখ্যা বিশ্লেষণ করে দেখা গেছে, কঠোর বিধিনিষেধের মধ্যেই রাজধানীতে ফিরেছেন সাড়ে ১২ লাখের বেশি মানুষ। ঢাকা ছেড়েছেন ৯ লাখের বেশি মানুষ। আর ঈদ উপলক্ষে গত নয় দিনে কোটির বেশি মানুষ ঢাকা ছাড়লেও প্রবেশ করেছেন ২১ লাখের মতো মানুষ।

রাজধানীর রামপুরা বাজার এলাকায় কথা হয় রিকশা চালক হাফিজুল ইসলামের সঙ্গে। তিনি বলেন, ঈদে বাড়ি যাওয়ার পর সিংহভাগ মানুষ ঢাকায় ফিরে আসেনি। তাই ঢাকা এখনও ফাঁকা। রাস্তায় মানুষ নেই, গাড়ি নেই। ফলে ট্রিপও পাচ্ছি না। এর মধ্যে চলছে বিধিনিষিধ। তাই কোথাও মানুষের ভিড় চোখে পড়ছে না।

অন্যদিকে কঠোর বিধিনিষেধ অমান্য করায় তৃতীয় দিন রোববার (২৫ জুলাই) রাজধানীতে ৫৮৭ জনকে গ্রেফতার করেছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি)। দ্বিতীয় দিন শনিবার (২৪ জুলাই) ৩৮৩ জনকে গ্রেফতার করে ডিএমপি। আর প্রথম দিন শনিবার (২৩ জুলাই) বিধিনিষেধ অমান্য করায় ৪০৩ জনকে গ্রেফতার করে ডিএমপি।