‘তিন দিন আগে গাড়িত চড়িয়াও মোর ঈদ রাস্তাত’

প্রকাশিত: জুলাই ২১, ২০২১

‘কি কমো বাহে তিন দিন আগে গাড়িত চড়িয়া ঈদের দিনেও বাড়িত যাবার পাইনো না। অল্প কয়দিনের জন্য লকডাউন খুলি যাওয়ায় একবারে রাস্তাত জাম লাগি গেচে। স্ত্রী, মেয়ে ও নাতনির পোশাক আছে ব্যাগে। ঈদের দিনেও দিবার পারলাম না। যাবো পীরগাছা পাওটানা এলাকায়। আরও কত সময়ে বাড়িত যাবার পাবো আল্লাহ ভালো জানে।’

ঢাকা থেকে ঈদ করতে রংপুর আসলেন মকবুল হোসেন। ঈদের দিন সকাল ১০টার দিকে নগরীর মর্ডান মোড় এলাকা থেকে এ কথাগুলো বলেন তিনি।

রংপুর বিভাগের আট জেলার প্রবেশদ্বার নগরীর মর্ডান মোড়। বুধবার (২১ জুলাই) সকাল থেকে এই প্রবেশদ্বারে ভিড় রয়েছে গ্রামে ঈদ করতে আসা মানুষের। বাস, ট্রাক থেকে নেমে অন‌্য গাড়ি না পাওয়ায় গন্তব্য স্থলে যেতে চরম বিপাকে পড়েছেন তারা।

লালমনিরহাটের পাটগ্রামে যাওয়ার উদ্দেশ্যে গাড়ির অপেক্ষায় আছেন পোশাক শ্রমিক রুমন মিয়া। তিনি বলেন, ‘গত সোমবার বিকেলে গাড়িতে উঠেও সময় মতো বাড়িতে পৌঁছাতে পারলাম না। মর্ডানে নেমে পাটগ্রামের গাড়িও পাচ্ছি না। বাড়িতে স্ত্রী, দুই মেয়ে ও মা আমার পথ চেয়ে আছে।’

মকবুল, রুমন, নুর আলমের মতো আরও অনেক মানুষ এই মর্ডান মোড়ে গাড়ির জন‌্য অপেক্ষা করছেন। ঢাকা থেকে রওনা দেওয়ার ৩৫-৪০ ঘণ্টা পর তারা মর্ডান মোড়ে পৌঁছেছেন। দুই একটি ছোট গাড়ি আসার সঙ্গে সঙ্গে হুমড়ি খেয়ে পড়ছেন অনেকে। কেউবা আবার পায়ে হেঁটে যাচ্ছেন বাড়ির দিকে।

মহানগর কোতোয়ালি থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. রাজিব বসুনিয়া বলেন, ‘ঈদে ঘরমুখো মানুষ যাতে নিরাপদে বাড়িতে যেতে পারে সে বিষয়ে পুলিশের টহল টিম কাজ করছে। এছাড়া, কোথায় কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে নগরে মোড়ে মোড়ে পুলিশ দায়িত্ব পালন করছেন।’