এখনো থমথমে দিল্লি, কারফিউ কিছুটা শিথিল

প্রকাশিত: ফেব্রুয়ারি ২৮, ২০২০

ভারতের রাজধানী দিল্লিতে নাগরিকত্ব সংশোধন আইনের (সিএএ) সমর্থক ও বিরোধীদের সংঘর্ষে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৪২ জনে দাঁড়িয়েছে। দাঙ্গা কবলিত এলাকাগুলোয় এখনও থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে।

পরিস্থিতি কতটা শান্ত তা দেখতে উত্তর-পূর্ব দিল্লিতে ১৪৪ ধারা শিথিল করা হয়েছে। এদিকে, নতুন করে সহিংসতার আশঙ্কায় শুক্রবারের নামাজের আগে গুরুগ্রামে সর্বোচ্চ সতর্কতা জারি করা হয়। এছাড়া মৌজপুর, বাবরপুর, জাফরাবাদসহ বিভিন্ন স্থানে নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়। খবর আনন্দবাজার, এনডিটিভি, বিবিসি ও রয়টার্সের।

সিএএ নিয়ে সহিংসতার সঙ্গে কারা জড়িত, কারা অর্থ জোগাচ্ছে তা খুঁজে বের করার জন্য দিল্লি হাইকোর্ট শুক্রবার কেন্দ্রীয় সরকার, দিল্লি সরকার ও দিল্লি পুলিশকে নোটিশ দিয়েছে। ৩০ এপ্রিল পরবর্তী শুনানির দিন সংশ্লিষ্টদের এ ব্যাপারে জানাতে বলা হয়েছে। দিল্লিতে সহিংস ঘটনার সময় পুলিশের ভূমিকা প্রশ্নবিদ্ধ হওয়ায় শনিবার বাধ্যতামূলক অবসর নিচ্ছেন দিল্লির পুলিশ কমিশনার অমূল্য পট্টনায়েক।

১০ ঘণ্টার জন্য ১৪৪ ধারা শিথিল : দিল্লি পরিস্থিতি কতটা নিয়ন্ত্রণে তা পর্যালোচনা করার জন্য সাময়িকভাবে ১৪৪ ধারা শিথিলের সিদ্ধান্ত নিয়েছে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। শুক্রবার ১০ ঘণ্টার জন্য নিষেধাজ্ঞা শিথিল করা হয়। বুধবার থেকে উত্তর-পূর্ব দিল্লিজুড়ে পুলিশ, র‌্যাফ, আধাসেনার টহলদারি শুরু হয়েছে।

জাফরাবাদ, মৌজপুর, গোকুলপুরীর অনেক এলাকা আগের তুলনায় অনেকটাই শান্ত বলে পুলিশের দাবি। ১৪৪ ধারার নিষেধাজ্ঞা শিথিল করে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় দেখতে চায়, পরিস্থিতি সত্যিই শান্ত হয়েছে কিনা। শুক্রবার ভোর ৪টা থেকে সকাল ১০টা এবং বিকাল ৪টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত দু’দফায় ১৪৪ ধারা শিথিল করা হয়।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় পুলিশের কর্তা এবং সরকারি অফিসারদের সঙ্গে উচ্চপর্যায়ের বৈঠক করেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। বৈঠকে স্বরাষ্ট্র সচিব অজয়কুমার ভাল্লা, পুলিশ কমিশনার অমূল্য পট্টনায়েক এবং স্পেশাল কমিশনার (আইনশৃঙ্খলা) এসএন শ্রীবাস্তব প্রমুখ ছিলেন। এতে দিল্লির আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ে বিশদ আলোচনা হয়। এরপর ১৪৪ ধারা সাময়িকভাবে শিথিল করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

বেছে বেছে শুধু মুসলিমদের ওপরই আক্রমণ : দিল্লির সংঘর্ষে বেছে বেছে শুধু মুসলিমদের ওপরই আক্রমণ করা হয়েছে বলে মন্তব্য করেছে মার্কিন কমিশন। মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প দেশে ফেরার পর দিল্লির সহিংস ঘটনায় মোদি সরকারকে কড়া আক্রমণ করেছে আন্তর্জাতিক ধর্মীয় স্বাধীনতা সংক্রান্ত মার্কিন কমিশন। কমিশনের দাবি, ‘?আমরা দেখেছি দিল্লির সহিংসতায় বেছে বেছে মুসলিমদের আক্রমণ করা হচ্ছে। তাদের বাড়ি ও দোকান পুড়িয়ে দেয়া হচ্ছে। কিন্তু সরকারের প্রাথমিক দায়িত্বগুলোর অন্যতম হল দেশের প্রত্যেক নাগরিককে ধর্মবিশ্বাস নির্বিশেষে নিরাপত্তা দেয়া।’ মার্কিন কমিশনের সদস্য অনুরিমা ভার্গবা জানান, ভারতে মুসলিমদের ক্রমশ একঘরে করে দেয়ার প্রবণতা লক্ষ্য করা যাচ্ছে। যা সম্পূর্ণভাবে মানবাধিকার লঙ্ঘনের শামিল। তদন্তে উঠে আসছে, মসজিদ জ্বালিয়ে দেয়া হয়েছে। এলাকা ছাড়তে মুসলিম পরিবারদের বাধ্য করা হয়েছে। দিল্লি পুলিশও গোটা ঘটনায় নীরব দর্শকের ভূমিকা পালন করেছে। শক্ত হাতে সহিংসতা আটকাতে ব্যর্থ হয়েছে মোদি সরকার।

শান্ত হচ্ছে দিল্লি, গুজবে কান দেবেন না : শুক্রবার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ বলেছেন, ‘শান্ত হচ্ছে দিল্লির পরিস্থিতি। গুজবে কান দেবেন না। তিনি বলেন, ‘সাম্প্রদায়িক উত্তেজনা ছড়াতে দুষ্কৃতকারীরা গুজব ছড়াচ্ছে। শহরের ২০৩টি থানার মধ্যে ১২টিতে দাঙ্গা হয়েছে। বাকি দিল্লিতে সম্প্রীতি অক্ষুণ্ন রয়েছে। ৩৬ ঘণ্টায় কোনো বড় গোলমাল হয়নি।’

সরে দাঁড়ালেন পুলিশ কমিশনার অমূল্য পট্টনায়ক : উত্তেজনাকর পরিস্থিতির মধ্যেই দিল্লি পুলিশ কমিশনার বদল করা হয়েছে। দিল্লির পুলিশ কমিশনার অমূল্য পট্টনায়ক শনিবার বাধ্যতামূলক অবসরে যাচ্ছেন। তার জায়গায় এসএন শ্রীবাস্তবকে স্থলাভিষিক্ত করা হচ্ছে। উত্তর-পূর্ব দিল্লির সহিংসতা রোধ নিয়ে পুলিশের ভূমিকা প্রশ্নবিদ্ধ হয়। দিল্লি পুলিশ আদালতেও ভর্ৎসনার শিকার হয়। পুরো ঘটনার দায় কেন্দ্রের ঘাড়ে চাপিয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের পদত্যাগ দাবি করেছে কংগ্রেস।

সোনিয়া-রাহুল-প্রিয়াঙ্কা গান্ধীর বিরুদ্ধে এফআইআর : দিল্লি সহিংসতায় উসকানিমূলক মন্তব্যের অভিযোগে সোনিয়া, রাহুল ও প্রিয়াঙ্কা গান্ধীর বিরুদ্ধে এফআইআর দায়েরের আবেদন জমা পড়েছে দিল্লি হাইকোর্টে। এ পরিপ্রেক্ষিতে কেন্দ্র সরকারের থেকে জবাব চেয়ে শুক্রবার নোটিশ জারি করেছেন হাইকোর্ট। অন্যদিকে, দিল্লির উপমুখ্যমন্ত্রী মনীশ সিসোদিয়া, আপ বিধায়ক আমানাতুল্লা খান, এআইএমআইএম নেতা ওয়ারিস পাঠান ও আকবরুদ্দিন ওয়াইসির বিরুদ্ধে এফআইআর দায়েরের দাবিতে আদালতে আবেদনপত্র জমা পড়েছে। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, দিল্লি সরকার ও পুলিশকে নোটিশ দিয়েছেন বিচারপতি ডিএন পটেল ও বিচারপতি সি হরি শঙ্করের বেঞ্চ।

সূত্রঃ যুগান্তর