পথে পথে ঘরমুখী মানুষের ঢল

প্রকাশিত: জুলাই ১৬, ২০২১

পাড়ি দিতে হবে পদ্মা। কার আগে কে উঠবেন এমন প্রতিযোগিতায় নেমেছেন ঈদে ঘরমুখো মানুষ। এ জন্য জীবনের ঝুঁকিও নিচ্ছেন তারা। ধাক্কাধাক্কি ও হুড়োহুড়ি করে শিমুলিয়া-বাংলাবাজার নৌরুটে লঞ্চে উঠছেন যাত্রীরা। অর্ধেক যাত্রী নিয়ে লঞ্চ চলাচলের কথা থাকলেও দ্বিগুণ যাত্রী নিয়ে পারাপার হচ্ছে উত্তাল পদ্মা। আর যানবাহন ওঠার আগেই যাত্রীদের দখলে পুরো ফেরি। তোয়াক্কা নেই স্বাস্থ্যবিধিরও।

কয়েকজন বলেন, কোরবানি করতে হবে। তো এ জন্যই কষ্ট করে বাড়িতে যাওয়া। ঝুঁকি নিয়ে হলেও কষ্ট করে মা-বাবার কাছে যাচ্ছি।  
এ রুটে ১৭টির মধ্যে ১৩টি ফেরি চলাচল করলেও অতিরিক্ত চাপ থাকায়, ঘাট এলাকায় দীর্ঘ হচ্ছে যানবাহনের সারি। বিআইডব্লিউটিসির সহ-মহাব্যবস্থাপক মো. সফিকুল ইসলাম বলেন, সারাক্ষণ আমরা বলছি, প্রত্যেকেই যেন মাস্ক পরে। এবং আমি কাউন্টারে বলে দিয়েছি, মাস্ক ছাড়া কাউকে যেন টিকিট দেওয়া না হয়।  
এদিকে একইচিত্র পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌরুটেও। ঘণ্টার পর ঘণ্টা পারাপারের অপেক্ষায় থাকা চরম ভোগান্তিতে ঘরমুখো মানুষ।

যাত্রীরা বলেন, ঘণ্টার পর ঘণ্টা অপেক্ষা করতে হচ্ছে। প্রচুর কষ্ট হচ্ছে।  

অন্যদিকে, সড়ক মহাসড়কে ব্যাপক হারে বেড়েছে যানবাহনের চাপ। ঢাকা-ময়মনসিংহ ও টাঙ্গাইল মহাসড়কে থেমে থেমে চলছে যানবাহন।
তীব্র যানজটের কারণে ঢাকাগামী গরুবোঝাই ট্রাক নিয়ে নাকাল হচ্ছেন ব্যবসায়ীরা।