আগামী সপ্তাহে জাপান থেকে ২৫ লাখ টিকা আসার প্রত্যাশা

প্রকাশিত: জুলাই ৭, ২০২১

আগামী সপ্তাহে জাপান থেকে কোভ্যাক্সের আওতায় ২৫ লাখের মতো টিকা আসতে পারে বলে প্রত্যাশা করেছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন। একইসঙ্গে ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ) থেকেও জুলাইয়ের শেষে ১০ লাখের মতো টিকা আসবে বলেও জানান তিনি।

বুধবার (৭ জুলাই) রাজধানীর নিজ বাসভবনে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে এ প্রত্যাশার কথা জানান পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

আব্দুল মোমেন বলেন, ‘আমার সঙ্গে জাপানের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর আলাপ হয়েছে। ওরা (জাপান) অন্য দেশকে টিকা দিয়েছে, সেটা আমরা তুলে ধরেছি। তারা বলেছে, আমাদের দেবে তবে সঠিক পরিমাণটা বলেনি। বড় অংকের টিকা জাপান দেবে, আশা করি আড়াই মিলিয়নের মতো হবে। যে কোনো দিন আসবে, আগামী সপ্তাহে জাপান কোভ্যাক্স থেকে টিকা দিবে; এটা আমরা পাব।’

জাপান কোন টিকা দেবে জানতে চাইলে ড. মোমেন বলেন, ‘জাপানের কাছ থেকে আমরা অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা পাব। তাদের কাছে অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা আছে। এসব বড় বড় দেশ বহু টিকা সংগ্রহ করেছে বা লাইন আপ করে রেখেছে।’

ইইউ থেকে ১০ লাখের মতো টিকা চলতি মাসের শেষের দিকে পাওয়া যেতে পারে জানিয়ে মোমেন বলেন, ‘টিকার জন্য ইউরোপীয়ানদের সঙ্গেও যোগাযোগ করেছি, সেটাও আসা শুরু হবে। সেটাও কোভ্যাক্সের আন্ডারে, তারা ১ মিলিয়ন (১০ লাখ) টিকা দেবে। আমাদের জেনেভার রাষ্ট্রদূত জানিয়েছে, ইইউ দেশগুলো থেকে আমরা এক মিলিয়ন টিকা পাব। এটা চলতি মাসের শেষের দিকে পাওয়া যেতে পারে।’

আগামী তিনমাসের মধ্যে সিনোফার্ম থেকে কেনা টিকা দেশের আনার জন্য চূড়ান্ত চুক্তি করা হয়েছে বলে জানান পররাষ্ট্রমন্ত্রী। তিনি বলেন, ‘আগামী তিন মাস চায়না থেকে যেগুলো আসবে সেটা আমরা চূড়ান্ত করে ফেলেছি, সেগুলো আসবে। তাছাড়া আরও যা দরকার হবে সিনোফার্ম কোম্পানি আমাদের বলেছে, কতটুকু লাগবে তাদের জানানোর জন্য। তারা বলেছে, আগে জানাতে হবে; কারণ অনেকে টিকা নেওয়ার জন্য…আমরা এর মধ্যে বলে দেব।’

টিকার জন্য সিনোফার্ম ছাড়াও চায়নার সিনোভ্যাকের সঙ্গে কথা হচ্ছে বলেও জানান ড. মোমেন। চলতি মাসে চায়না থেকে আর কোনো টিকা আসবে কি না-এমন প্রশ্নের জবাবে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘আবার চুক্তি করতে হবে। আমরা তিনমাসের জন্য চুক্তি করেছি, ৫০ লাখের মতো হবে; তবে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় ভালো বলতে পারবে। পরবর্তীতে ডিসেম্বর বা আগামী বছরে ২৬ কোটি প্লাস টিকা লাগবে। অনেক অনেক টাকা লাগবে।’

যুক্তরাষ্ট্র থেকে আরও টিকা পাওয়া যাবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন ড. মোমেন। তিনি বলেন, আমেরিকা থেকে ২৫ লাখ পেয়েছি, আরও পাব।

রাশিয়া থেকে টিকা আনার বিষয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রী জানান, রাশিয়া থেকে টিকার আনার বিষয়ে লাইন আপ হয়ে গেছে।

ভারত থেকে টিকা পাওয়া প্রসঙ্গে মোমেন বলেন, ভারত আমাদের কখনও বলেনি টিকা দেবে না। তারা সবসময় বলেছে, কিন্তু ডেলিভারি করতে পারেনি। আমরা সবসময় আশাবাদী তাদের অবস্থার উন্নতি হলে তারা আমাদের দেবে।

টিকা নিয়ে বাংলাদেশ বর্তমানে ভালো অবস্থানে আছে বলেও জানান পররাষ্ট্রমন্ত্রী।