সিলেট বিভাগে সর্বোচ্চ ৩০২ জন শনাক্ত

প্রকাশিত: জুলাই ২, ২০২১

দেশের উত্তর-পূর্বাঞ্চলের বিভাগ সিলেটে গত ২৪ ঘণ্টায় এ যাবৎকালের মধ্যে সর্বোচ্চ সংখ্যক করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়েছে। এ সময়ে নতুন করে শনাক্ত হন ৩০২ জন।

এর আগে গত বুধবার (৩০ জুন) বিভাগের চার জেলায় ২৬২ জনের করোনা শনাক্তের খবর জানানো হয়েছিল, যা ছিল সিলেটে একদিনে সবচেয়ে ছিল। সবমিলিয়ে করোনা সংক্রমণের শুরু থেকে এ পর্যন্ত বিভাগে মোট শনাক্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২৬ হাজার ২৮৩ জনে।

শুক্রবার (০২ জুলাই) বিকেলে সিলেট বিভাগীয় পরিচালক (স্বাস্থ্য) ডা. সুলতানা রাজিয়া ও পরিসংখ্যানবিদ মতিউর রহমান স্বাক্ষরিত কোভিড-১৯ কোয়ারেন্টিন ও আইসোলেশনের দৈনিক প্রতিবেদন থেকে এ তথ্য জানা গেছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বৃহস্পতিবার (০১ জুলাই) সকাল ৮টা থেকে আজ শুক্রবার সকাল ৮টা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় বিভাগে আরও ২ জনের মৃত্যু হয়েছে। আর এ সময়ে হাসপাতালে এবং বাসায় আইসোশেলনে থাকা আরও ১০৫ জন করোনা থেকে মুক্তি পেয়েছেন। সবমিলিয়ে করোনা সংক্রমণের শুরু থেকে এ পর্যন্ত মোট মারা গেছেন ৪৮০ জন, সুস্থ হয়েছেন ২৩ হাজার ৩৭৭ জন।

প্রতিবেদন অনুযায়ী, সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছে সিলেট জেলায়। এ জেলায় শনাক্ত ১৭ হাজার ৪০৯ জনের মধ্যে সুস্থ হয়েছেন ১৬ হাজার ১৫২ জন, মৃত্যু হয়েছে ৩৯৩ জনের।

সুনামগঞ্জ জেলায় শনাক্ত হওয়া ৩ হাজার ১৬ জনের মধ্যে সুস্থ হয়েছেন ২ হাজার ৮৩০ জন, মৃত্যু হয়েছে ৩৩ জনের; হবিগঞ্জ জেলায় শনাক্ত হওয়া ২ হাজার ৭৮১ জনের মধ্যে সুস্থ হয়েছেন ২ হাজার ১১০ জন, মারা গেছেন ১৯ জন এবং মৌলভীবাজার জেলায় ৩ হাজার ৭৭ জনের মধ্যে মৃত্যু হয়েছে ৩৫ জনের, সুস্থ হয়েছেন ২ হাজার ৬৮৫ জন।

এদিকে, করোনা সংক্রমণ রোধে লকডাউনের দ্বিতীয় দিনে আজ সিলেটের পথ-ঘাট একদম ফাঁকা। সকাল থেকে কখনও গুঁড়ি গুঁড়ি আবার কখনও মুষলধারায় বৃষ্টিপাত অব্যাহত রয়েছে। জনসাধারণের চলাচল না থাকলেও নগরে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর টহল অব্যাহত রয়েছে। বিভিন্ন পয়েন্টে চেকপোস্ট বসিয়ে তল্লাশি চালানো হচ্ছে।

সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (মিডিয়া অ্যান্ড কমিউনিটি সার্ভিস) বি এম আশরাফ উল্যাহ তাহের জানান, প্রথম দিনের ন্যায় দ্বিতীয় দিনেও এসএমপির ১৮টি টিম মাঠে রয়েছে। লকডাউন বাস্তবায়নে তারা কাজ করে যাচ্ছেন। অমান্যকারীদের বিরুদ্ধে মামলাসহ আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে বলেও জানিয়েছেন তিনি।