দীর্ঘ সময় প্রস্রাব চেপে রাখলে কী হয়?

প্রকাশিত: জুন ২০, ২০২১

দীর্ঘ সময় ধরে প্রস্রাব চেপে রাখার ফলে ইউরিন ইনফেকশন ও কিডনির সমস্যা দেখা দিতে পারে। সে কারণে একজন পূর্ণবয়স্ক সুস্থ মানুষের দিনে অন্তত ৪ থেকে ১০ বার মূত্রত্যাগ করা উচিত। কিন্তু অনেকেই অলসতার কারণে প্রস্রাবের চাপ ধরে রাখেন। অনেক মানুষ গাড়ি, অফিস কিংবা বাসায় প্রস্রাবের চাপ অনুভব করার পরেও তারা টয়লেটে যেতে চান না। স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা বলছেন, কখনোই প্রস্রাবের চাপ ধরে রাখা ঠিক নয়। কারণ এতে মূত্রথলির নানা সমস্যা দেখা দিতে পারে।

স্বাভাবিকভাবে আমরা ৪০০ থেকে ৫০০ মিলিমিটার পর্যন্ত প্রস্রাব ধরে রাখতে পারি। এর বেশি প্রস্রাব ধরে রাখলে শারীরিক সমস্যা হতে পারে। প্রস্রাবের চাপ ধরে রাখার ফলে যে গুরুতর সমস্যাগুলো দেখা দেয়, সে সম্পর্কে আজ আপনাকে জানাবো-

মূত্রথলির পেশী দূর্বল হতে পারে

দিনের বড় একটি সময় যদি কেউ প্রস্রাব চেপে রাখেন, তাহলে মূত্রথলির পেশী দূর্বল হতে থাকে। তাছাড়া প্রস্রাব চেপে রাখলে মূত্রথলি স্বাভাবিকভাবে কাজ নাও করতে পারে। স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা বলেছেন, যখনই প্রস্রাবের চাপ আসে তখনই সেটি সেরে ফেলা জরুরি।

মূত্রথলির সংক্রমণ হতে পারে

কোনো ব্যক্তি যদি নিয়মিত প্রস্রাব চেপে রাখেন তাহলে তিনি মূত্রথলির সংক্রমণ কিংবা ইউরিনারি ট্র্যাক্ট ইনফেকশনে আক্রান্ত হতে পারেন। এতে কিডনি ও মূত্রথলির রোগ প্রতিরোধের ক্ষমতা কমে যায়।

মূত্রথলিতে ব্যাকটেরিয়া বাড়ে

প্রস্রাবের চাপ ধরে রাখার জন্য মূত্রথলিতে ব্যাকটেরিয়া বেড়ে যায়। শরীরের জন্য ক্ষতিকর পানি যদি কেউ বের হতে না দেন তাহলে অনেক দিন ধরে মূত্রথলিতে ব্যাকটেরিয়া সৃষ্টি হতে থাকে। আর শরীরে ব্যাকটেরিয়া সৃষ্টি হওয়া ভালো কোনো লক্ষণ নয়।