সিম কার্ড, কলরেটের দাম বাড়ছে

প্রকাশিত: জুন ৩, ২০২১

করোনা মহামারিতে ২০২১-২২ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেটে মোবাইল ফোনের সিম কার্ড, আমদানি করা স্মার্টফোনের দাম বাড়তে পারে। সিম কার্ডের ওপর সম্পূরক শুল্ক হার ২০ শতাংশ করার প্রস্তাব করা হয়েছে। এ প্রস্তাব পাস হলে সিম কার্ডের দাম বাড়বে।

|আরো খবর
পর্তুগালে শিশু দিবসের অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ
নারী উদ্যোক্তাদের করমুক্ত আয়সীমা ৭০ লাখ টাকা
দাম কমছে মোটরসাইকেলের
এছাড়া মন্ত্রীর প্রস্তাবিত বাজেট অনুযায়ী দেশিয় পণ্য সুরক্ষায় শুল্ক আরোপের ফলে আমদানি করা স্মার্টফোনের দাম আরেক দফা বাড়তে পারে। মোবাইল সিম ব্যবহার করে সেবা গ্রহণের বিপরীতে সম্পূরক শুল্ক ১০ শতাংশ থেকে বাড়িয়ে ১৫ শতাংশ নির্ধারণের প্রস্তাব দেয়া হয়েছে। এর ফলে মোবাইল ফোনে কথা বলা, বার্তা পাঠানো এবং ডেটা ব্যবহারের খরচ বেড়ে যাবে।

তবে সংশ্লিষ্ট সূত্রগুলো বলছে, দেশের মোট চাহিদার ১০ শতাংশেরও কম সিম আমদানি করা হয়। ৯০ শতাংশ সিম দেশেই তৈরি হয়। ফলে সিম কার্ডে শুল্ক আরোপ করা হলেও তা খুব বেশি প্রভাব ফেলবে না।

বাজেট প্রতিক্রিয়ায় মোবাইল ফোন অপারেটর রবি’র চিফ করপোরেট অ্যান্ড রেগুলেটরি অফিসার সাহেদ আলম বলেন, দেশের ইতিহাসে সর্ববৃহৎ বাজেট প্রদানের জন্য সরকারকে আমরা আন্তরিক অভিনন্দন জানাই। প্রস্তাবিত এই বাজেট আসছে অর্থবছরে দেশের অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ডকে আরো বেগবান করবে।

দেশে এখন ৭টি প্রতিষ্ঠান সিম কার্ড তৈরি করে। অন্যদিকে বাজেট প্রস্তাবে স্মার্ট কার্ডে ১০ শতাংশ সম্পূরক শুল্ক প্রস্তাব করা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, এ পর্যন্ত সর্বমোট ৪৯টি বাজেট উত্থাপন করেছেন ১২ জন ব্যক্তি। তাদের মধ্যে একজন রাষ্ট্রপতি, ৯ জন অর্থমন্ত্রী ও দুজন অর্থ উপদেষ্টা। ব্যক্তি হিসেবে সবচেয়ে বেশি ১২টি করে বাজেট উত্থাপন করেছেন প্রয়াত অর্থমন্ত্রী এম সাইফুর রহমান এবং আবুল মাল আবদুল মুহিত। এর মধ্যে আবুল মাল আবদুল মুহিত আওয়ামী লীগের হয়ে রেকর্ড টানা ১০টি বাজেট উপস্থাপন করেছেন।