এক সপ্তাহে করোনা নিরাময়ে ‘সক্ষম’ অ্যান্টিবডি ককটেল

প্রকাশিত: মে ২৮, ২০২১

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসায় অ্যান্টিবডি ককটেল অনেক বেশি কার্যকর বলে দাবি করেছেন চিকিৎসকরা। যুক্তরাষ্ট্র ও ইউরোপের কিছু দেশের পর এবার ভারতেও করোনা আক্রান্ত রোগীর চিকিৎসায় এ অ্যান্টিবডি ককটেল ব্যবহার করা হচ্ছে।

এ বিষয়ে হায়দ্রাবাদের এআইজি হাসপাতালের চেয়ারম্যান ডা. ডি নাগেশ্বর রেড্ডি বলেন, এআইজি হাসপাতালে এরই মধ্যে অ্যান্টিবডি ককটেলের ব্যবহার শুরু হয়েছে। করোনার বিরুদ্ধে এই ককটেল করোনা চিকিৎসায় অত্যন্ত সক্রিয়। এ ককটেল ব্যবহারের ফলে যেকোনো রোগী মাত্র এক সপ্তাহের মধ্যেই করোনামুক্ত হতে পারেন। দীর্ঘদিন গবেষণা করে দেখার পরই আমাদের হাসপাতালে এ অ্যান্টিবডি ককটেল ব্যবহারের অনুমতি দেওয়া হয়। যাদের বয়স বেশি এবং যারা ডায়াবেটিস রোগী, তাদের শরীরে এই ককটেল সবচেয়ে বেশি কাজ করছে।

কী এই অ্যান্টিবডি ককটেল ?

অ্যান্টিবডি ককটেলে রয়েছে কাসিরিভিম্যাব এবং ইমডেভিম্যাব নামে দুটি অ্যান্টিবডি। যা মানুষের শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়। এ অ্যান্টিবডি ককটেল ব্যবহারের কারণে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগী দ্রুত সুস্থ হয়ে উঠেন।

অ্যান্টিবডি ককটেলের দাম কত?

ভারতে এ অ্যান্টিবডি ককটেলের প্রতি ডোজের দাম ৫৯ হাজার ৭৫০ টাকা। বর্তমানে দেশটিতে অ্যান্টিবডি ককটেলের প্রথম ব্যাচ পাওয়া যাচ্ছে। জুনের মাঝামাঝিতে মিলবে দ্বিতীয় ব্যাচ। ইতোমধ্যে জরুরিভিত্তিতে অ্যান্টিবডি ককটেল ব্যবহারের ছাড়পত্র দিয়েছে দি সেন্ট্রাল ড্রাগস স্ট্যান্ডার্ডস কন্ট্রোল অর্গানাইজেশন।

উল্লেখ্য, গত বছর অক্টোবরে সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প যখন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছিলেন তখন তাকে এ অ্যান্টিবডি ককটেল দেওয়া হয়েছিল।