বংশালে রিকশাচালককে নির্যাতন: সেই সুলতান কারাগারে

প্রকাশিত: মে ৫, ২০২১

রাজধানীর পুরান ঢাকার বংশালে এক রিকশাচালককে নির্যাতনের ঘটনায় আটক সুলতান আহমেদের জামিন আবেদন খারিজ করে তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দিয়েছেন আদালত।

আজ বুধবার (৫ মে) ঢাকা মহানগর হাকিম দেবব্রত বিশ্বাসের আদালত শুনানি শেষে এই আদেশ দেন।

এদিন আসামি সুলতান আহমেদকে ঢাকা মহানগর হাকিম আদালতে হাজির করা হয়। এসময় ভুক্তভোগী রিকশাচালককে খুঁজে না পাওয়া পর্যন্ত আসামিকে কারাগারে আটক রাখার আবেদন করেন বংশাল থানার উপপরিদর্শক মো. আলী রেজা মামুন। আর আসামি পক্ষ জামিন আবেদন করেন। অন্যদিকে রাষ্ট্রপক্ষ জামিনের বিরোধিতা করেন। উভয় পক্ষের শুনানি শেষে আদালত জামিন আবেদন খারিজ করে তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

পুলিশ সদর দপ্তরের এআই‌জি (মি‌ডিয়া অ্যান্ড পাব‌লিক রি‌লেশন্স) মো. সো‌হেল রানা গতকাল বলেছিলেন, আটক ব্যক্তি বংশাল এলাকার বাড়িওয়ালা ও প্রভাবশালী। তার বিরুদ্ধে উপযুক্ত আইনি পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে।

সো‌হেল রানা জানান, ‌একজন সংবাদকর্মী আজ পুলিশের মিডিয়া অ্যান্ড পাবলিক রিলেশন্স উইংকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের একটি ভিডিও লিংক পাঠান। ভিডিওতে দেখা যায়, বংশালে একজন ব্যক্তি এক রিকশাওয়ালাকে থাপ্পড় মারছেন। নির্যাতনের একপর্যায়ে রিকশাওয়ালা মাটিতে পড়ে যান এবং জ্ঞান হারালে পাশ থেকে লোকজন এগিয়ে আসেন।

ভিডিওটি দেখামাত্র মিডিয়া অ্যান্ড পাবলিক রিলেশন্স উইং বংশাল থানার ওসি মো. শাহীন ফকিরকে নির্দেশনা দেয় নিপীড়নকারী লোকটিকে খুঁজে বের করে দ্রুত আইনের আওতায় আনতে। এরই পরিপ্রেক্ষিতে ওসির নেতৃত্বে একটি টিম অভিযুক্ত ব্যক্তিকে খুঁজে বের করে দ্রুত সময়ের মধ্যে তাকে আইনের আওতায় আনে।

বংশাল থানার ডিউটি অফিসার এসআই মো. মামুনুর রশিদ বলেন, ‌রিকশাচালককে মারধরের ঘটনায় তাকে আটক করা হয়েছে। আমরা ভুক্তভোগী ওই রিকশাচালককে খুঁজে পেলে, তার অভিযোগের ভিত্তিতে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।