আম ছেঁড়াকে কেন্দ্র করে বাড়িতে আগুন

প্রকাশিত: এপ্রিল ২২, ২০২১

গাছের আম ছেঁড়াকে কেন্দ্র করে গোপালগঞ্জের কাশিয়ানীতে হামলা চালিয়ে বাড়িঘর ভাচুর ও অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটেছে।

এ সময় প্রতিপক্ষের হামলায় নারীসহ পাঁচজন আহত হয়েছেন। আহতদের কাশিয়ানী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (২২ এপ্রিল) সকাল সাড়ে ৭টার দিকে উপজেলার দৈহিসারা বড়বাহিরবাগ গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় ইউপি সদস্যসহ ছয়জনকে আটক করেছে পুলিশ। আহতরা হলেন জাহাঙ্গীর মোল্যা (৫০), পারভীন বেগম (৪০), লাবু মোল্যা (৩০), মামুন মোল্যা (২৫) ও ইমরান (১৮)।

এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, এলাকার আধিপত্য নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে ওই গ্রামের ইউপি সদস্য আব্দুস সালাম ও নওশের আলীর সমর্থকদের মধ্যে বিরোধ চলে আসছিল।

বুধবার বিকেলে নওশের আলীর সমর্থক ওই গ্রামের আমিনুদ্দিনের ছেলে প্রতিবন্ধী সুমন মোল্যা একই গ্রামের শাহাদত শেখের পুকুরপাড়ের আমগাছ থেকে কয়েকটি আম ছিঁড়ে ফেলে। এতে সালাম মোল্যার সমর্থক বাবুল মোল্যা সুমনকে মারধর করেন।

এ নিয়ে দুই পক্ষের মধ্যে চরম উত্তেজনা সৃষ্টি হয়। এরই জের ধরে বৃহস্পতিবার সকালে দুই পক্ষের লোকজন লাঠিসোটা ও দেশীয় অস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েন। এ সময় সালাম মোল্যার সমর্থকরা নওশের মোল্যার বাড়িতে ঢুকে হামলা চালান এবং একটি ঘর আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দেন। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। আহতদের উদ্ধার করে কাশিয়ানী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

কাশিয়ানী থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মো. আলমগীর কবীর বলেন, খবর পেয়ে আমরা ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনি। এখন পর্যন্ত থানায় মামলা হয়নি। ঘটনাস্থল থেকে ইউপি সদস্য সালামসহ ছয়জনকে আটক করা হয়েছে। এলাকার পরিস্থিতি এখন শান্ত।