করোনায় ভারতে আরও প্রায় ১২০০ জনের মৃত্যু

প্রকাশিত: এপ্রিল ১৬, ২০২১

ভারতে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা বেড়েই চলেছে। মহামারির দ্বিতীয় ঢেউয়ে বিপর্যস্ত দেশটির বিভিন্ন রাজ্য। প্রতিদিন নতুন সংক্রমণের সংখ্যায় রেকর্ড গড়ার পাশাপাশি বেড়েছে মৃত্যুর সংখ্যাও। শুক্রবারও (১৬ এপ্রিল) দেশটিতে দুই লাখ ১৭ হাজারের বেশি মানুষ নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। মারা গেছেন প্রায় ১২০০ মানুষ।

করোনা আক্রান্তের সংখ্যার দিক থেকে বিশ্বে তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে উঠে এসেছে ভারত। টানা দ্বিতীয় দিনের মতো দেশটিতে দৈনিক সংক্রমণের সংখ্যা ২ লাখ ছাড়াল ৷ গত ২৪ ঘণ্টায় ভারতে নতুন করে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ২ লাখ ১৭ হাজার ৩৫৩ জন। দেশে দৈনিক সংক্রমণের নতুন এই রেকর্ডে করোনায় আক্রান্ত মোট রোগীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১ কোটি ৪২ লাখ ৯১ হাজার ৯১৭ জন।

যুক্তরাষ্ট্রের পর দ্বিতীয় দেশ হিসেবে ভারতে দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যা ১ লাখ পেরিয়েছে। বর্তমানে যুক্তরাষ্ট্রের চেয়ে ভারতে অনেক বেশি দ্রুত গতিতে ছড়াচ্ছে করোনাভাইরাস। পরিস্থিতি ক্রমশই ভয়াবহ আকার ধারণ করেছে।
করোনার দ্বিতীয় ঢেউ ভারতের দৈনিক মৃত্যুর সংখ্যাকেও বাড়িয়ে দিয়েছে। পর পর ৩ দিন হাজার ছাড়িয়েছে দৈনিক মৃত্যু। গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে দেশটিতে মারা গেছে এক হাজার ১৮৫ জন। মহামারি শুরুর পর দেশটিতে করোনায় মোট মৃতের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ১ লাখ ৭৪ হাজার ৩০৮ জন। গত মার্চের শুরুতেও দেশটির দৈনিক মৃতের সংখ্যা ছিল ১০০-১৫০ ঘরে।

ভারতে করোনায় আক্রান্তদের মধ্যে সুস্থ হয়েছেন ১ কোটি ২৫ লাখ ৪৩ হাজার ৯৭৮ জন। সক্রিয় করোনা রোগীর সংখ্যা ১৫ লাখ ৬৩ হাজার ৫৮৮ জন। সুস্থতার হার ৯০ দশমিক ৮ শতাংশ। আর এখনও পর্যন্ত দেশটিতে কোভিড-১৯ টিকা নিয়েছেন ১১ কোটি ৪৪ লাখ ৯৩ হাজার ২৩৮ জন।

ভারতের রাজ্যগুলোর মধ্যে মহারাষ্ট্র, কেরালা, দিল্লি এবং কর্ণাটকের দৈনিক সংক্রমণ সবচেয়ে বেশি। সরকারি হিসেবে মহারাষ্ট্রে মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৩৬ লাখ ৩৯ হাজার ৮৫৫ আর মৃত্যু হয়েছে ৫৯ হাজার ১৫৩ জনের। গত ২৪ ঘণ্টায় মহারাষ্ট্রে নতুন করে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ৬১ হাজার ৬৯৫ জন, মৃত্যু হয়েছে ৩৪৯ জনের। মহারাষ্ট্রজুড়ে ইতোমধ্যেই রাত্রিকালীন কারফিউ জারি করা হয়েছে।

কেরালায় আক্রান্ত্রের সংখ্যা ১১ লাখ ৯৭ হাজার ৩০২ জন। মৃত্যু হয়েছে ৪ হাজার ৮৫৭। গত ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত হয়েছে ৮ হাজার ১২৬ জন। কর্ণাটকে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১১ লাখ ৯ হাজার ৬৫০, মৃত্যু হয়েছে ১৩ হাজার ১১২ জনের। তামিলনাড়ুতে মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৯ লাখ ৬২ হাজার ৯৩৫ জনে, মৃত্যু হয়েছে ১২ হাজার ৯৯৯ জনের।

অন্ধ্রপ্রদেশে আক্রান্ত ৯ লাখ ৪২ হাজার ১৩৫ জন, মৃত্যু হয়েছে ৭ হাজার ৩৫৩ জনের। দিল্লিতে সংক্রমিত হয়েছেন ৭ লাখ ৮৪ হাজার ১৩৭ জন, সেখানে মৃত্যু হয়েছে ১১ হাজার ৬৫২ জনের। উত্তরপ্রদেশে করোনায় আক্রান্ত ৭ লাখ ৬৬ হাজার ৩৬০ জন, মৃত্যু হয়েছে ৯ হাজার ৪৮০ জনের।

গত ২৪ ঘণ্টায় ছত্তিশগড়ে নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ১৫ হাজার ২৫৬ জন। রাজ্যটিতে মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৫ লাখ এক হাজার ৫০০জনে। আর মহামারি শুরুর পর থেকে সেখানে মারা গেছেন ৫ হাজার ৪৪২ জন।