স্বামীর মতোই সড়কেই প্রাণ গেল কামরুন্নাহারের

প্রকাশিত: মার্চ ২৬, ২০২১

স্বামী শাহজাহান তোতা সড়ক দুর্ঘটনায় মারা গেলেন দুই দশক আগে। ঠিক স্বামীর মতই সড়কে প্রাণ গেল বিধবা কামরুন্নাহারের।

শুক্রবার বেলা পৌনে ২টার দিকে রাজশাহীর কাটাখালীতে মর্মান্তিক সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাণ হারান কামরুন্নাহার। তিনি রংপুরের পীরগঞ্জ উপজেলার রাজারামপুরের বাসিন্দা। দুর্ঘটনায় তার ছোট বোন শামসুন্নাহার (৩২), বোনের স্বামী সালাহউদ্দিন (৩৮), ছেলে সাজিদ ও আঠারো মাসের মেয়ে সাবাও মারা গেছে।

মাইক্রোবাস চালকসহ এ দুর্ঘটনায় মারা গেছেন ১৭ জন। তারা সবাই রংপুরের পীরগঞ্জ উপজেলার বাসিন্দা। দুর্ঘটনার পর মরদেহ উদ্ধার করে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে পুলিশ।

খবর পেয়ে সেখানে ছুটে যান নিহত কামরুন্নাহারের ভাতিজা বউ চম্পা খাতুন। স্বামীর চাকরির সুবাদে তারা রাজশাহীতে বসবাস করেন।

তিনি জানান, বন্ধুর পরিবারের সঙ্গে তারা রাজশাহীতে বেড়াতে আসছিলেন। আগেই সেই খবর তাদের জানানো হয়। কিন্তু তারা আর রাজশাহীতে পৌঁছাননি। দুর্ঘটনায় পথে প্রাণ হারিয়েছেন।

তিনি বলেন, দুর্ঘটনার পর আগুনে একেবারেই দগ্ধ হয়েছেন স্বজনরা। তিনি কেবল ফুফাশ্বশুর সালাউদ্দিনের মরদেহ চিনতে পেরেছেন। বাকিদের কারও মরদেহ চেনার উপায় নেই। পুড়ে একেবারেই অঙ্গার হয়ে গেছে।

মর্মান্তিক এ সড়ক দুর্ঘটনায় আহত হয়েছেন তিনজন। তারা দুর্ঘটনাকবলিত বাসটির যাত্রী ছিলেন। দুর্ঘটনা তদন্তে ছয় সদস্যের কমিটি গঠন করেছে জেলা প্রশাসন। এনিয়ে মামলা দায়ের প্রক্রিয়াধীন বলে জানিয়েছে পুলিশ।