ঘটনাটি এতো বর্বর ও পৈশাচিক হয়েছে তা বুঝতে পারিনি : নানক

প্রকাশিত: ডিসেম্বর ২২, ২০১৯

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে অস্থিতিশীলতা সৃষ্টি করলে কোনো মঞ্চকেই ছাড় দেওয়া হবে না বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্যা জাহাঙ্গীর কবির নানক।

রোববার রাতে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ ও ছাত্রলীগের হামলায় আহত ডাকসুর ভিপি নুরুল হক নুরকে দেখতে যান তিনি। এরপর সাংবাদিকদের কাছে এ মন্তব্য করেন নানক। এ সময় তার সঙ্গে ছিলেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম।

তবে হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ইমারজেনসি সেন্টারে (যেখানে নুরসহ আহতরা ভর্তি আছেন) ঢুকতে তাদের বাধা দেন শিক্ষার্থীরা। বেশ কিছুক্ষণ চেষ্টার পর নানক ও নাছিম সেখানে প্রবেশ করেন।

আহতদের দেখে হাসপাতাল থেকে বেরিয়ে নানক বলেন, ‘এই ঘটনা শুনেই প্রধানমন্ত্রী আমাদের নির্দেশ দিয়েছেন তাদের দেখার জন্য। ঘটনাটি এত পৈশাচিক, এত বর্বর হয়েছে তা বুঝতে পারিনি। এ কয়দিন আমরা আওয়ামী লীগের কাউন্সিলর নিয়ে ব্যস্ত ছিলাম। আজকে যেটি হয়েছে বা এর আগের কোনো ঘটনায় ঢাবিসহ কোনো শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি সরকার সহ্য করবে না’।

তিনি বলেন, ‘ভিপি নুরসহ ছাত্রদের ওপর যে হামলা হয়েছে এটা রাজনৈতিক কোনো প্রতিহিংসার ব্যাপার নয়। কোনো দুষ্কৃতকারী, কোনো জায়গার বা কারও নির্দেশে ঢাবিকে অশান্ত করার এই প্রচেষ্টা চালাচ্ছে। যে মঞ্চই হোক, যে মঞ্চের নামেই এই গোলযোগ করুক, কাউকেই সরকার রেহাই দেবে না, কাউকেই ছাড় দেওয়া হবে না। সবাইকে আইনের আওতায় আনা হবে’।

নানক আরো বলেন, ‘আমরা তাদের (আহতদের) শুধু দেখতে এসেছি। এখানে রোগীরা আইসিইউতে রয়েছে, এ ছাড়া হাসপাতালে অনেক জরুরি রোগী রয়েছে, এখানে যারা স্লোগান দিচ্ছে, তাদেরও কুমতলব রয়েছে। প্রশাসনকে সতর্ক থাকতে হবে এদের কুমতলবের বিষয়ে। এরা কারা, কী চায়, এদের উদ্দেশ্য কী তা আমরা গভীরভাবে পর্যবেক্ষণ করছি। আইন রক্ষাকারী বাহিনীও সব বিষয় খতিয়ে দেখে কঠোর ব্যবস্থা নেবে। কোনো মঞ্চই যাতে কোনো গোলযোগ করে ঢাবিকে অশান্ত করতে না পারে’।

সরকারের সঙ্গে সাধারণ ছাত্রদের একটা আস্থাহীনতা সৃষ্টি হয়েছে কি না এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘এখানে গুটিকয়েক ছেলে গোলযোগ করছে। সরকারের সঙ্গে আস্থার সংকট হয়নি। আমি বলব সরকারের ওপর আস্থা রাখতে হবে। সরকার শিক্ষার পরিবেশ রক্ষার্থে দৃঢ় অবস্থানে রয়েছে’।

Source: