পটিয়ায় তুচ্ছ ঘটনায় ভাতিজার হাতে চাচা খুন

প্রকাশিত: মার্চ ১০, ২০২১

চট্টগ্রামের পটিয়া উপজেলার কুমুমপুরা পান্না পাড়ায় তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে ভাতিজার ছুরিকাঘাতে চাচা আবুল কালাম (৫০) খুন হয়েছেন। এ ঘটনায় আবুল কালামের স্ত্রী ফাতেমা আক্তার (৩৫) আহত হন।

বুধবার (১০ মার্চ) সকাল সাড়ে ৮টার দিকে শফি মেম্বারের বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে বলে নিশ্চিত করেছেন পটিয়া থানার এস আই মোক্তার হোসেন ভূইয়া। ঘটনাস্থল পরিদর্শন শেষে এসআই মোক্তার হোসেন বলেন, ‌‘নিহত আবুল কালাম পানের ব্যবসা করেন। সকালে রাস্তার ওপর পানের ঝুড়ি রাখেন। রাস্তা দিয়ে যাওয়ার সময় নিহতের আপন ভাই আবু মুসার ছেলে মোবারক হোসেন সৌরভ (১৮) তা লাথি দিয়ে ফেলে দেয়। এই ঘটনায় নিহতের স্ত্রী প্রতিবাদ করেন। এরপর কথা কাটাকাটির একপর্যায়ে আবুল কালাম ঘর থেকে লাঠি নিয়ে এসে ভাতিজা সৌরভকে তাড়া করে। সৌরভ দৌড়ে চলে গেলে আবুল কালাম ঘরে ফিরে যেতে থাকে। এ সময় সৌরভ ছুরি নিয়ে এসে চাচা আবুল কালামের পেটে ও বুকে ছুরি দিয়ে আঘাত করে। এসময় আবুল কালামের স্ত্রী তাকে বাঁচাতে আসলে তাকেও ছুরিকাঘাত করে সৌরভ।

তিনি বলেন, পরে স্থানীয়রা দুইজনকে উদ্ধার করে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে পাঠায়। ঘটনার পরপরই অভিযুক্তরা বাড়ি ছেলে পালিয়ে গেছে। এখনো কাউকে গ্রেফতার করা যায়নি।

চমেক হাসপাতাল পুলিশ ফাঁড়ির সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) আলাউদ্দীন তালুকদার বলেন, বেলা পৌনে ১১টার দিকে আবুল কালামকে চমেক হাসপাতালের জরুরি বিভাগে আনা হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

চিকিৎসকের বরাত দিয়ে তিনি জানিয়েছেন, আহত ফাতেমা আক্তারের অবস্থা গুরুতর। চমেক হাসপাতালের চিকিৎসাধীন। আর নিহতের মরদেহ মর্গে পাঠানো হয়েছে। নিহত আবুল কালাম পান্না পাড়ার শফি মেম্বার বাড়ির আহমেদ জালালের ছেলে।