তরুণ প্রজন্মকে দক্ষ জনশক্তি হিসেবে তৈরি করতে হবে

প্রকাশিত: ফেব্রুয়ারি ২৭, ২০২১

শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেছেন, চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের চ্যালেঞ্জ মোকাবিলার জন্য আমাদের তরুণ প্রজন্মকে দক্ষ জনশক্তি হিসেবে তৈরি করতে হবে। যাতে এ চতুর্থ শিল্প বিপ্লব থেকে বাংলাদেশ সর্বোচ্চ লাভবান হতে পারে।

শনিবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) ‘টেকসই উন্নয়নের জন্য তথ্য প্রযুক্তির ভূমিকা’ শীর্ষক দুই দিনব্যাপী এক আন্তর্জাতিক সম্মেলনের উদ্বোধনকালে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব প্রফেশনালসের (বিইউপি) ইনফরমেশন অ্যান্ড কমিউনিকেশন ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের উদ্যোগে অনলাইনে এ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। সম্মেলনে বিশ্বের ১১টি দেশের গবেষকরা অংশ নিচ্ছেন।

দীপু মনি বলেন, এ সরকার ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণে নিরলস কাজ করে চলছে। একইসঙ্গে এ ধরনের সম্মেলন খুবই সময়োপযোগী যা বাংলাদেশের আইসিটি খাতে ভূমিকা রাখবে বলেও তিনি উল্লেখ করেন।

এ সময় অনলাইনে আরও যুক্ত ছিলেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক, বিইউপির উপাচার্য মেজর জেনারেল মো. মোশফেকুর রহমান, উপ-উপাচার্য প্রফেসর ড. এম আবুল কাশেম মজুমদার।

বিইউপি থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে, শনিবার সম্মেলনের প্রথমদিনে বিশ্বের ১১টি দেশের গবেষকরা স্বাস্থ্য, ব্যবসা, কৃষি, ইন্ডাস্ট্রি, এবং আধুনিক শহর ইত্যাদি বিষয়ের উপর ৩১০টি গবেষণাপত্র দাখিল করেছেন। এগুলোর মধ্যে ৯৭টি গবেষণাপত্র উপস্থাপনার জন্য অনুমোদন করা হয়।

বাংলাদেশ এবং বিশ্বের বিভিন্ন দেশের বিজ্ঞানী, প্রকৌশলী, গবেষক, সরকারি কর্মকর্তা, ইন্ডাস্ট্রি সম্পর্কিত কর্মকর্তা এবং নীতি-নির্ধারকদের মধ্যে তথ্য আদান-প্রদান এবং বাংলাদেশ ও বহির্বিশ্বের সঙ্গে একটি শক্তিশালী নেটওয়ার্কিং সহযোগিতা তৈরি করার লক্ষ্যে সম্মেলনের আয়োজন করা হয়েছে বলেও বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়।

উদ্বোধনী দিনে প্রবন্ধ বক্তা হিসেবে অনলাইনে যুক্ত ছিলেন আয়ারল্যান্ডে ইউনিভার্সিটি অব লিমারিকের প্রফেসর ও সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ারিং মাইক হিনছে, বুয়েটের প্রফেসর এসপি মজুমদার। দুই দিনব্যাপী ‘ইনফরমেশন অ্যান্ড কমিউনিকেশন টেকনোলজি ফর সাস্টেইনেবল ডেভেলপমেন্ট’ শীর্ষক আন্তর্জাতিক এ সম্মেলনের মূল প্রতিপাদ্য হলো ‘শেপিং অ্যা সাস্টেইনেবল ফিউচার থ্রো অ্যাডভান্সমেন্ট ইন ইনফরমেশন অ্যান্ড কমিউনিকেশন টেকনোলজি’।