দেশের ভবিষ্যত নিয়ে শঙ্কায় বিএনপি নেতা নজরুল

প্রকাশিত: ফেব্রুয়ারি ২৩, ২০২১

দেশের ভবিষ্যত নিয়ে শঙ্কা প্রকাশ করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ও ২০ দলীয় জোটের মুখপাত্র নজরুল ইসলাম খান। তার দাবি, দুর্নীতি, অবিচার ও অনাচারে নিমজ্জিত দেশ। বর্তমান সরকার যেহেতু ভোটে নির্বাচিত নয়, তাই তারা জনগণের কাছে দায়বদ্ধ নয়। দেশবাসী অশান্তি ও কষ্টে থাকলে তাদের কিছু আসে যায় না।

মঙ্গলবার (২৩ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবে আয়োজিত এক আলোচনা সভায় এসব কথা বলেন নজরুল। ২০ দলীয় জোটের শরিক জাতীয় পার্টি (জাফর) এ সভার আয়োজন করে।

১৯৭০ সালে যারা স্বাধীন পূর্ব বাংলার ঘোষণা দিয়েছিলেন, তাদের নাম এখন ইতিহাসে নেই বলে মন্তব্য করে নজরুল ইসলাম বলেন, সূর্যের চেয়ে বড় নক্ষত্র আছে। কিন্তু সূর্য কাছাকাছি দেখে তাকেই বড় মনে হয়। আজকে যারা মুক্তিযুদ্ধের ফেরি করে বেড়ান, আপনারা কি মুক্তিযুদ্ধে অংশ নিয়েছিলেন? যখন মনে হয় যুদ্ধে আপনাদের দেখিনি, অথচ সব কৃতিত্বের দাবিদার তারাই, তখন মনে বড় কষ্ট লাগে।

খালেদা জিয়াকে মিথ্যা মামলা দিয়ে কারারুদ্ধ করে রাখা হয়েছে উল্লেখ করে বিএনপির এই নেতা বলেন, সরকার ভালো মতোই জানে তিনি বাইরে থাকলে দেশ ও জনগণ নিয়ে ছিনিমিনি খেলা যাবে না। তাই তাকে কারারুদ্ধ করে দিনের ভোট রাতে করে নিয়েছে। দেশের মানুষ আজ নিরাপদ নয় নয় বলে অভিযোগ করে নজরুল ইসলাম বলেন, একজন রাজনৈতিক কর্মী হিসেবে তখনই শান্তি পাবো, যেদিন এদেশের মানুষ তাদের অধিকার ফিরে পাবে, জানমালের নিরাপত্তা পাবে।

জিয়াউর রহমানকে অসম্মান করার অপচেষ্টা চলছে বলে দাবি করে নজরুল ইসলাম বলেন, এই শহীদ জিয়া দেশে বহুদলীয় গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠিত করেছিলেন। মহান স্বাধীনতার ঘোষণা দিয়েছিলেন। ১ নম্বর সেক্টর কমান্ডার থাকা অবস্থায় স্বাধীনতার আগেই সেখানে বাংলাদেশের প্রশাসন গড়ে তুলেছিলেন। সেই তাকে আওয়ামী লীগ সরকার অসম্মান করার অপচেষ্টা চালাচ্ছে। এই অপচেষ্টা শুধু জিয়ার বিরুদ্ধে নয়, মুক্তিযোদ্ধা ও মুক্তিযুদ্ধের বিরুদ্ধে। জামুকা কাউকে খেতাব দেওয়া বা নেওয়ার ক্ষমতা রাখে না। আর যে এ প্রস্তাবটি তুলেছেন তিনিই বঙ্গবন্ধু হত্যার পর খুনি মুজিবের বিচার হয়েছে বলে উল্লাস করেছিলেন।

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান মোস্তফা জামাল হায়দারের সভাপতিত্বে সভায় আরও বক্তব্য রাখেন- গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের ট্রাস্টির প্রতিষ্ঠাতা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী, অর্থনীতিবিদ ড. মাহবুব উল্লাহ, বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান নিতাই রায় চৌধুরী, জাতীয় পার্টির মহাসচিব আহসান হাবিব লিংকন প্রমুখ।

এএইচআর/এনএফ