গবেষণা প্রবন্ধগুলো বাংলায় লেখার প্রচলন করতে হবে

প্রকাশিত: ফেব্রুয়ারি ২১, ২০২১

চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (চুয়েট) ভাইস চ্যান্সেলর অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ রফিকুল আলম বলেছেন, একুশে ফেব্রুয়ারির আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি বিশ্বের বুকে বাঙালির একটি স্বকীয় অবস্থান তৈরি করেছে। বাংলা ভাষাকে সর্বস্তরে ছড়িয়ে দিতে হলে আমাদের গবেষণা ও অ্যাবস্ট্রাক্টগুলো বাংলায় প্রকাশ করতে হবে।

রোববার (২১ ফেব্রুয়ারি) চুয়েট কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের পাদদেশে মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উদযাপন উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

চুয়েট ভিসি বলেন, তরুণ প্রজন্মকে একুশের মহান চেতনা ধারণ করতে হবে। বাংলা ভাষার ব্যবহারের প্রতি দায়িত্বশীল হতে হবে। তবেই ভাষার প্রতি ও ভাষাশহীদদের প্রতি সম্মান দেখানো হবে।

চুয়েটে জাতীয় দিবস উদযাপন কমিটির সভাপতি এবং পুরকৌশল অনুষদের নিন অধ্যাপক ড. মো. রবিউল আলমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন প্রকৌশল ও প্রযুক্তি অনুষদের ডিন ও ছাত্রকল্যাণ পরিচালক অধ্যাপক ড. মো. রেজাউল করিম, স্থাপত্য ও পরিকল্পনা অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. মো. মইনুল ইসলাম, যন্ত্রকৌশল অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. জামাল উদ্দিন আহম্মদ, বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার (অতিরিক্ত দায়িত্ব) অধ্যাপক ড. ফারুক-উজ-জামান চৌধুরী।

অনুষ্ঠান সঞ্চালনায় ছিলেন উপ-পরিচালক (জনসংযোগ) মোহাম্মদ ফজলুর রহমান এবং নগর ও অঞ্চল পরিকল্পনা বিভাগের সহকারী অধ্যাপক এটিএম শাহজাহান। এতে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, কর্মকর্তা, কর্মচারী ও শিশু-কিশোররা স্বাস্থ্যবিধি মেনে অংশ নেন।

এর আগে দিবসটি উপলক্ষে সকাল সাড়ে ৭টায় ক্যাম্পাসের উত্তর গোলচত্ত্বর থেকে প্রভাতফেরীর মাধ্যমে দিনব্যাপী কর্মসূচির শুরু হয়। এতে নেতৃত্ব দেন ভাইস চ্যান্সেলর অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ রফিকুল আলম। এরপর চুয়েট কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে ভাষা শহীদদের শ্রদ্ধা জানিয়ে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ রফিকুল আলম।