শুরুতেই দিশেহারা বাংলাদেশ

প্রকাশিত: ফেব্রুয়ারি ১২, ২০২১

ঢাকা টেস্টে নিজেদের প্রথম ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে দুই উইকেট হারিয়ে শুরুতেই চাপে পড়েছে বাংলাদেশ। ওপেনার সৌম্য সরকার ফিরে গেছেন কোন রান না করেই। এরপর নাজমুল হোসন শান্তও থিতু হতে পারেননি উইকেটে। ফিরে গেছেন মাত্র ৪ রানে।

এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত ১২ ওভারে ২ উইকেট হারিয়ে ৫৩ রান করেছে বাংলাদেশ। ব্যাটিংয়ে আছেন তামিম (৩১) ও অধিনায়ক মুমিনুল হক (১৭)।

বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসানের পরিবর্তে ঢাকা টেস্টে সুযোগ পেয়েছেন সৌম্য সরকার। কিন্তু সুযোগটা কাজে লাগাতে পারলেন না তিনি।

তামিম ইকবালের সঙ্গে ওপেনিংয়ে নেমে ব্যক্তিগত রানের খাতা খোলার আগেই বিদায় নেন সৌম্য। নিজের দ্বিতীয় ওভার করতে এসে উইকেট তুলে নেন শ্যানন গ্যাব্রিয়েল। একই ওভারে তিনি ফিরিয়েছেন নাজমুল হাসান শান্তকেও। প্রথম বলে ৪ মারলেও দ্বিতীয় বলেই ক্যাচ তুলে দেন শান্ত।

এর আগে বাংলাদেশি বোলারদের চরম পরীক্ষা নিয়ে ৪০৯-এ থামে ওয়েস্ট ইন্ডিজের প্রথম ইনিংস। এনক্রুমা বোনারের ৯০ আর জসুয়া ডি সিলভার ৯২ রানের ওপর ভর করে স্বাগতিকদের বিপক্ষে বড় সংগ্রহ দাঁড় করায় ক্যারিবীয়রা।

প্রথম দিনের ৫ উইকেটে ২২৩ রান নিয়ে দ্বিতীয় দিনের খেলা শুরু করে সফরকারীরা। সকালে খেলা শুরু হওয়ার পর কোনো উইকেট না হারিয়ে ৪৩ রান যোগ করে সফরকারীরা। দলীয় ২৬৬ রানে ফিরে যান এনক্রুমা বোনার। সেঞ্চুরি থেকে ১০ রান দূরে থাকতেই মেহেদী হাসান মিরাজের ঘুর্ণিতে পরাস্ত হয়ে ফিরে যান তিনি। এরপর জুটি গড়েন আলজেরি জোসেফ ও জোশুয়া দ্য সিলভা। বাংলাদেশি বোলারদের হতাশ করে সচল রাখেন রানের চাকা। দু’জন মিলে গড়েন মূল্যবান ১১৮ রানের জুটি। তবে সিলভাকে ফিরতে হয় আক্ষেপ নিয়ে। ক্যারিয়ারের প্রথম সেঞ্চুরি থেকে মাত্র ৮ রান দূরে থাকতে তাকে সাজঘরে ফেরান তাইজুল ইসলাম। জোসেফের ব্যাট থেকে আসে ৮২ রান।

তবে এরপর টাইগার বোলাররা প্রতিপক্ষকে খুব বেশি এগোতেও দেননি। শেষ ২৫ রানে ৪ উইকেট তুলে নিয়ে ৪০৯ রানে অলআউট করেছে সফরকারীদের।

বাংলাদেশের হয়ে আবু জায়েদ রাহী এবং তাইজুল ইসলাম নিয়েছেন ৪টি করে উইকেট। এছাড়া সৌম্য এবং মিরাজ নিয়েছেন ১টি করে উইকেট।