শেষ হলো ২য় আন্তর্জাতিক কো-ক্রিয়েশন কনফারেন্স

প্রকাশিত: ফেব্রুয়ারি ৬, ২০২১

কৈশোর এবং যুবাবয়স্কদের যৌন ও প্রজনন স্বাস্থ্য এবং অধিকার প্রতিষ্ঠায় বিশ্বব্যাপী কঠোর সচেতনতার অঙ্গীকার নিয়ে শেষ হলো যৌন ও প্রজনন স্বাস্থ্য এবং অধিকার বিষয়ে সাম্প্রতিকতম তথ্যের সবচেয়ে বড় প্ল্যাটফর্ম শেয়ার-নেট ইন্টারন্যাশনাল ২য় আন্তর্জাতিক কো-ক্রিয়েশন কনফারেন্স। কৈশোর এবং যুবাবয়স্কদের যৌন ও প্রজনন স্বাস্থ্য এবং অধিকার প্রতিষ্ঠায় ২৫-২৮ জানুয়ারি এবং ৩ ফেব্রুয়ারি পাঁচ দিনব্যাপী আয়োজিত এই সম্মেলনে টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্য-৩ অর্জনের পাশাপাশি এইচআইভি নির্মূল, যৌন ও প্রজনন স্বাস্থ্য ও অধিকার বিষয়ে সকলের সুযোগ প্রতিষ্ঠা ও জাতীয় নীতিতে এই পরিষেবাগুলো নিয়ে আলোচনা করা হয়।

এছাড়াও, কিশোর-কিশোরীদের ঝুঁকিপূর্ণ যৌনাচরণ রোধে সোশ্যাল মিডিয়া এবং যুবক্লাবগুলো যৌন ও প্রজনন স্বাস্থ্য এবং অধিকার বিষয়ে সঠিক তথ্য দিতে কি ধরনের ভূমিকা রাখতে পারে সে বিষয়টি নিয়েও আলোচনা করা হয়।

সম্মেলনের উদ্বোধনী অধিবেশনে গেস্ট অফ অনার হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশে অবস্থিত নেদারল্যান্ডসের রাষ্ট্রদূত হ্যারি ভারওয়েজ। পাঁচ দিনব্যাপী এ সম্মেলনে এশিয়া, মধ্যপ্রাচ্য, উত্তর ও দক্ষিণ আমেরিকা, ইউরোপ এবং আঢিফ্রকাসহ বিশ্বের সকল বিভিন্ন প্রান্ত থেকে প্রায় ৫৫জন গবেষক, শিক্ষাবিদ, মানবাধিকারকর্মী, এনজিওকর্মী অংশগ্রহণ করনে।

কনফারেন্সে অংশগ্রহণকারীরা বর্তমান সময়ের যোগাযোগ মাধ্যম এবং হেল্প ডেস্কগুলো বাল্যবিবাহ রোধ, সঠিক যৌন দৃষ্টিভঙ্গি তৈরি, মাসিক স্বাস্থ্য ব্যবস্থাপনাসহ সবার জন্য সমান সুযোগ প্রতিষ্ঠায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে পারে বলে বিস্তারিত আলোচনা করেন।

এছাড়াও বিভিন্ন ধরনের ইন্টারেক্টিভ সেশনের আয়োজন ছিল পুরো সম্মেলন জুড়েই যেখানে বিভন্ন দেশ থেকে অংশগ্রহণকারীরা আটটি দলে বিভক্ত হয়ে সেশনগুলোতে অংশ নেন। সম্মেলনে কো-ক্রিয়েশন মেকানিজমে বিজ্ঞানসম্মত উপায়ে অর্জিত জ্ঞানকে ডকুমেন্টেড করা এবং প্রস্তাবিত বিষয়ের উপর অনুদানের সুযোগ রাখা হয়।

প্রতি দু’বছর অন্তর অনুষ্ঠিত এই কনফারেন্স শেয়ার-নেট কান্ট্রি-হাবগুলো এ আয়োজন করে থাকে। এবারের আয়োজক দেশ বাংলাদেশ। দুই প্রধান ফ্যাসিলিটেটর নীনা পাভলোভস্ক, কো-ক্রিয়েশন অ্যান্ড ইনোভেশন ক্যাটালিস্ট এবং মাসুমা বিল্লাহ, হেড অফ রিসার্চ অ্যান্ড ইনোভেশন, রেডঅরেঞ্জ মিডিয়া অ্যান্ড কমিউনিকেশন্স (এসআরএইচআর অ্যান্ড জেন্ডার এক্সপার্ট)-এর তত্ত্বাবধানে কনফারেন্সটি পরিচালিত হয়েছে। তারা কুইজ ও বর্ণনাত্নক উপস্থাপনের মাধ্যমে অংশগ্রহণকারীদের সক্রিয় অংশগ্রহণের বিষয়টি নিশ্চিত করেন।