সামরিক অভ্যুত্থান ও সু চির আটক নিয়ে যা ভাবছে ভারত

প্রকাশিত: ফেব্রুয়ারি ১, ২০২১

মিয়ানমারে সামরিক অভ্যুত্থান নিয়ে গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেছে ভারত। একই সঙ্গে অং সান সু চিকে আটক করা নিয়েও অসন্তুষ্টির কথা জানিয়েছে নয়াদিল্লি।

সোমবার এক বিবৃতিতে দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়া চলতে দেওয়া ও আইনের শাসন অব্যাহত রাখার জন্য আহ্বান জানিয়েছে। খবর হিন্দুস্তান টাইমসের।

মিয়ানমারের পরিস্থিতির দিকে গভীর উদ্বেগের সঙ্গে নজর রাখা হচ্ছে জানিয়ে বিবৃতিতে বলা হয়, মিয়ানমারে গণতন্ত্র ফেরার প্রক্রিয়াকে সবসময় সমর্থন করেছে ভারত।

এ জন্য আইনের শাসন ও গণতন্ত্র ফেরার প্রক্রিয়াকে বজায় রাখা দরকার।

মিয়ানমারের সামরিক ও বেসামরিক প্রশাসনের সঙ্গে জটিল সম্পর্ক রয়েছে ভারতের।

সোমবার ভোরে মিয়ানমারের প্রেসিডেন্ট উইন মিন্ট, ক্ষমতাসীন দলের নেত্রী অং সান সু চিসহ কয়েকজন মন্ত্রীকে আটক করার পর দেশজুড়ে এক বছরের জরুরি অবস্থা জারি করেছে সেনাবাহিনী।

বার্তা সংস্থা এএফপির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, অভ্যুত্থানের পর মিয়ানমার সেনাবাহিনী জানিয়েছে– দেশটি এখন তাদের নিয়ন্ত্রণে রয়েছে।

মিয়ানমার সেনাবাহিনী বলছে, তারা কমান্ডার-ইন-চিফ মিন অং হ্লেইংয়ের হাতে ক্ষমতা হস্তান্তর করেছে।