লক্ষ্মীপুরে স্বাস্থ্য ক্লিনিকে ওষুধ আনতে গিয়ে গৃহবধূ ধর্ষণের শিকার

প্রকাশিত: নভেম্বর ১৩, ২০২০

কমিউনিটি ক্লিনিকে ওষুধ আনতে গিয়ে ক্লিনিকের ভিতরে স্বাস্থ্যকর্মীর দ্বারা ধর্ষণের শিকার হয়েছেন এক গৃহবধূ (৩০)। ঘটনাটি ঘটেছে লক্ষ্মীপুরের রায়পুরে। বুধবার (১১ নভেম্বর) রাতে ওই গৃহবধূ বাদী হয়ে উপজেলার দক্ষিণ চরবংশীর চর কাছিয়া গ্রামের স্বাস্থ্যকর্মী (সিএইচসিপি) আব্দুল মান্নান বেপারীকে আসামি করে রায়পুর থানায় মামলা করেছেন। বৃহস্পতিবার সকালে ওই গৃহবধূকে মেডিকেল পরীক্ষার জন্য লক্ষ্মীপুর সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়। অভিযুক্ত মান্নান একই এলাকার আঃ রশিদ বেপারীর ছেলে ও ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক। তিনি এখন যুবলীগের রাজনীতির সাথে সম্পৃক্ত।

স্বাস্থকর্মী আবদুল মান্নান নিজেকে নির্দোষ দাবি করে বলেন, ঘটনাটি মিথ্যা ও ষড়যন্ত্রমূলক। রাজনৈতিক প্রতিহিংসার কারণে নিজ দলের একটি পক্ষ মিথ্যা অপবাদ রটাচ্ছে। রায়পুর উপজেলা স্বাস্থ কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডাক্তার বাহারুল আলম জানান, ঘটনাটি শুনেছি। স্বাস্থ্যকর্মীর বিরুদ্ধে উপযুক্ত তথ্য প্রমাণ ও মেডিকেল রিপোর্ট সঠিক হলে তার বিরুদ্ধে অবশ্যই ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

রায়পুর থানার অফিসার ইনচার্জ আবদুল জলিল জানান, কমিউনিটি ক্লিনিকে সেবা নিতে গিয়ে আবদুল মান্নান নামে স্বাস্থকর্মীর দ্বারা এক রোগী (গৃহবধূ) ধর্ষণের শিকার হয়েছেন। ওই নারী বাদী হয়ে মামলা করেছেন। মেডিকেল রিপোর্টের জন্য ওই নারীকে সদর হাসপাতাল পাঠানো হয়েছে। অভিযুক্তকে গ্রেপ্তারের জন্য অভিযান চলছে।