মায়ের সামনে থেকে মেয়েকে তুলে নিয়ে ধর্ষণের পর হত্যা!!

প্রকাশিত: নভেম্বর ২, ২০১৯

৭১ এর রাজাকার বাহিনীর চেয়েও ভয়ংকর একটি স্বাধীন দেশে মায়ের সামনে থেকে মেয়েকে তুলে নিয়ে ধর্ষণের পর হত্যার এই চিত্র।

বাগমারায় কলেজ ছাত্রী কে ধর্ষণের পর হত্যা
সাধনপুর স্কুল এন্ড কলেজ এর এইচএসসি ১ম বর্ষের ছাত্রী তামান্না আক্তার টিয়া (১৭) কে ধর্ষনের পর শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়েছে!

নিহত টিয়ার বাড়ির থেকে ৫শ গজ দূরে নলডাঙ্গা উপজেলার সরকুতিয়া দক্ষিন পাড়ার আম বাগান থেকে ঝুলন্ত অবস্থায় মরদেহ উদ্ধার করে নলডাঙ্গা থানা পুলিশ।

হত্যার পর এভাবেই ঝুলিয়ে রাখা হয় কলেজ ছাত্রী টিয়াকে

নিহতের বাবা রশিদ উদ্দিন বলেন শুক্রবার রাত ১১টার দিকে সাধনপুরের খিদিরপুর গ্রামের আব্দুর রাজ্জাক এর ছেলে মোঃ শান্ত ইসলাম (২১) বাড়িতে এসে হুমকির মুখে তাঁর মেয়ে কে তুলে নিয়ে যায়।
সকালে ঝুলন্ত অবস্থায় মেয়ের লাশ দেখতে পেয়ে স্থানীয়রা তার বাড়িতে খবর দেয়।

স্থানীয়রা অভিযোগ করে বলছেন ঝুলন্ত অবস্থায় লাশের পা সম্পূর্ন মাটিতে ছিলো।এবং লাশ নামানোর সময় সাহায্যকারী স্থানীয় মহিলারা নিহতের যৌনাঙ্গে বেশ ক্ষত দেখতে পেয়েছেন,তাঁদের ভাষ্যমতে ধর্ষনের পর হত্যা করা হয়েছে। এ বিষয়ে নলডাঙ্গা থানায় আজ যোগাযোগ করলে ওসি বলেন আসামি একজন ধরা পরেছে এবং জেল হাজতে আছে। ধৃত আসামির বয়স ১৮ বছর হতে এক মাস বাকী।